Welcome To Gold Mind School

প্রিন্সিপালের কথা

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির উৎকর্ষের এই দিনে প্রতিনিয়ত চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হচ্ছে নতুন প্রজন্ম। যোগ্যতা অর্জন ব্যতিত কোন উপায় নেই, আগামী দিনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায়। গোল্ড মাইন্ড স্কুল আপনার আদরের সন্তানকে আগামী দিনে যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার উদ্দেশ্যেই প্রতিষ্ঠিত। গোল্ড মাইন্ড স্কুল একটি ব্যাতিক্রমধর্মী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলা হয়েছে। এখানে জাতীয় পাঠ্যক্রম ও টেক্সটবুক বোর্ড কর্তৃক অনুমোদিত পাঠ্য পুস্তক ব্যবহৃত হয়। মান সম্পন্ন ও যুগোপযোগী শিক্ষাদানের লক্ষ্যে টেক্সটবুক বোর্ড কর্তৃক অনুমোদিত বই এর পাশাপাশি বিশেষ কিছু নির্বাচিত বই বিভিন্ন শ্রেণির পাঠ্য সূচীতে অন্তর্ভূক্ত করা হয়। লেখাপড়ার পাশাপাশি প্রতিটি ছাত্র-ছাত্রী সৎ, পরিশ্রমী, দেশপ্রেমী এবং আত্মবিশ্বাসী করে গড়ে তোলার আন্তরিক প্রেচেষ্টা করে থাকি। প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা মাধ্যম বাংলা হলেও ইংরেজি শিক্ষাকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়। সুন্দর অনুকূল পরিবেশে মানসম্পন্ন শিক্ষা প্রদান করে শিক্ষার্থীদের শারীরিক, মানসিক ও বুদ্ধিবৃত্তিক বিকাশ ঘটানো আমাদের লক্ষ্য। আশা করি সবসময় আপনাদের আন্তরিক সহযোগিতা পাব।আপনার সন্তানের সার্বিক বিকাশের জন্য গোল্ড মাইন্ড স্কুল এর শিক্ষাক্রমকে সাজিয়েছি যুগোপযোগী, বিজ্ঞান সম্মত, সহজবোধ্য ও আন্দদায়ক করে। আমাদের কর্ম পরিকল্পনা বাস্তবায়নে এলাকাবাসী, অভিভাবক ও শুভাকাঙ্খীদরে আন্তরিক সহযোগীতা ও দোয়া কামনা করছি।

ধন্যবাদান্তে-

প্রিন্সিপাল
রাশিদা বেগম
প্রাক্তন সিনিয়র শিক্ষিকা, বিসিআইসি স্কুল

Why Choose Gold Mind School?

আমাদের বৈশিষ্ট্য সমূহ

  1. প্রতি শাখায় ১৮ জন ছাত্র-ছাত্রী।
  2. অভিজ্ঞ ও মেধাবী শিক্ষক/শিক্ষিকা দ্বারা পাঠদান।
  3. সহজ পাঠ পরিকল্পনার মাধ্যমে প্রতিদিনের পড়া প্রতিদিনই আদায়।
  4. মনিপুর, বিসিআইসি-সহ ঢাকার খ্যাতনামা স্কুলে ভর্তির উপযোগী করে গড়ে তোলা।
  5. ছাত্র-ছাত্রীদের ইংরেজি ভাষা শেখার সাথে সাথে কথোপকথনের জন্য স্পোকেন এর ব্যবস্থা।
  6. শিক্ষার মাধ্যম বাংলা, তবে ইংরেজি, আরবি, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিসহ নৈতিক শিক্ষার উপর বিশেষ গুরুত্ব প্রদান।
  7. ৩টি পার্বিক পরীক্ষা এবং প্রতিটি পার্বিক পরীক্ষার পূর্বে ১টি করে টিউটোরিয়াল পরীক্ষা।
  8. বিদ্যালয়ের যে কোন ব্যাপারে সম্মানিত অভিভাবকদের পরামর্শ গ্রহণ ও তা বাস্তবায়ন।
  9. পরিস্কারভাবে ডায়েরী লেখা ও শিক্ষক কর্তৃক যাচাই করা।
  10. শ্রেণি রুটিন, বর্ষপঞ্জি এবং সিলেবাস শিক্ষাবর্ষ শুরুরুর প্রথমেই প্রদান।
  11. নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সিলেবাস সম্পন্ন করে রিভিশন ক্লাস নেওয়ার ব্যবস্থা।
  12. মানসিক বিকাশের লক্ষ্যে সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের সাথে সম্পৃক্ত রাখা।
  13. ছাত্র-ছাত্রীদের যাতায়াতের জন্য পরিবহনের (ভ্যানের) সু-ব্যবস্থা।
  14. সার্বক্ষণিক বিদ্যুৎ (আই.পি.এস) এবং নিরাপত্তার ব্যবস্থা।
  15. প্রতিটি পার্বিক পরীক্ষার পূর্বে অভিভাবক দিবস পালন করা হয়।
  16. সম্মানিত সুধী, শিক্ষার্থীর সাফল্যই প্রতিষ্ঠানের সাফল্য, শিক্ষার্থীর ব্যর্থতাই প্রতিষ্ঠানের ব্যর্থতা। এই উক্তিটিকে সামনে রেখে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে “গোল্ড মাইন্ড স্কুল”।